Home / উদ্ভাবন / উদ্ভাবন হলো ‘অ্যালকোহলমুক্ত’ কিন্তু ‘গাঁজা’ মেশানো বিয়ার

উদ্ভাবন হলো ‘অ্যালকোহলমুক্ত’ কিন্তু ‘গাঁজা’ মেশানো বিয়ার

‘গাঁজা’ নামটি শুনলে ছিঃ ছিঃ পড়ে যায় আমাদের মাঝে। কিন্তু তা সম্প্রতি কানাডায় ও যুক্তরাষ্ট্রের ১০টি রাজ্যে বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। এরপর থেকেই গাঁজা মেশানো বিভিন্ন ধরনের পণ্য উৎপাদন হচ্ছে সেসব দেশে। এই ধারণা নিয়েই যুক্তরাষ্ট্রের এক বিয়ার কোম্পানি তৈরি করেছে গাঁজা মেশানো বিয়ার। তবে সাধারণত অন্যান্য বিয়ারে অ্যালকোহল থাকে।  এতে অ্যালকোহল থাকবে না।

গাঁজা বৈধ হওয়ার পর থেকেই অনেকে প্রবল উৎসাহ নিয়ে গাঁজা মেশানো খাবার ও পানীয়ের জন্য অপেক্ষা করছিলেন। বর্তমানে গাঁজা মেশানো পাই, পিৎজা পাওয়া যায় বটে, কিন্তু গাঁজা মেশানো পানীয় তৈরি করতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছিলো কোম্পানিগুলো।

সম্প্রতি ক্যালিফোর্নিয়ার বিয়ার কোম্পানি ‘টু রুটস ব্রিউয়িং’ প্রকাশ করেছে তাদের ‘পৃথিবীর প্রথম গাঁজা-মেশানো, অ্যালকোহলমুক্ত ক্রাফট ক্যানাবিয়ার’। এই পানীয় পান করার ১০ মিনিটের মাঝে গাঁজার নেশা চেপে ধরবে ও প্রায় ৯০ মিনিট তার রেশ থেকে যাবে।

গাঁজা মেশানো পানীয় তৈরির প্রথম সমস্যাটি হলো, গাঁজা পানির সাথে মেশে না। ফলে তা শরীরে শোষণ হয়ে প্রভাব ফেলতে বেশ সময় লাগে। এই সমস্যা সমাধানে টু রুটস ব্রিউয়িং ‘ন্যানো-ইমালসিফিকেশন’ পদ্ধতি ব্যবহার করে। এতে গাঁজা পানীয়তে সমানভাবে ছড়িয়ে যায় ও শরীরে শোষিত হতে পারে সহজে। অন্যান্য কোম্পানিও বিভিন্ন নতুন নতুন পদ্ধতি ব্যবহার করে গাঁজার পানীয় তৈরির চেষ্টা করছে।

যেসব রাজ্যে গাঁজা বৈধ করা হচ্ছে, সেখানে কমে আসছে অ্যালকোহল বিক্রয়ের পরিমাণ। এর জায়গা নিতে পারে গাঁজার এই বিয়ার। ক্যানাকর্ড জেনুইটি গ্রুপের গবেষকদের হিসাব মতে, ২০২২ সাল নাগাদ শুধু যুক্তরাষ্ট্রেই গাঁজা মেশানো পানীয়ের ব্যবসা হবে ৬০০ মিলিয়ন ডলারের। অনেক কোম্পানিই প্রচুর টাকা ঢালছে গাঁজা মেশানো পণ্যের পেছনে।

About admin

Check Also

‘রোবট বধূ’ তৈরি করছে চীন

মানুষের আদলে রোবট তৈরি কোনো নতুন খবর নয়। তবে চীনে নারীর তুলনায় পুরুষের সংখ্যা বেশি হয়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *